সরকারি গাছ কাটায় অধ্যক্ষসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশিত: ৯:২৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৫, ২০২০

সরকারি গাছ কাটায় অধ্যক্ষসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা

পাবনার চাটমোহরে সরকারি গাছ কাটার অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যান ও কলেজ অধ্যক্ষসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

|আরো খবর
উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যাচেষ্টা, ১৩৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা
স্কুলছাত্রী ধর্ষণ ও হত্যা মামলা, মৃত্যুদণ্ড বহাল
ট্রাম্প প্রশাসনের বিরুদ্ধে ২০০ বিশ্ববিদ্যালয়ের মামলা
বুধবার দুপুরে উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের ভূমি সহকারী কর্মকর্তা বিপুল কুমার জোয়ার্দ্দার বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। মামলা নাম্বার- ৯।

মামলায় হরিপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও হরিপুর দূর্গাদাস স্কুল এন্ড কলেজের গর্ভনিং বডির সভাপতি মকবুল হোসেনকে এক নাম্বার এবং অধ্যক্ষ আলী হায়দার সরদারকে নয় নাম্বার আসামি করা হয়েছে।

অন্য আসামিরা হলেন, কলেজের গভর্নিং বডির সদস্য আতিকুল ইসলাম, শাহজালাল উদ্দিন, মোশারফ হোসেন, আজাদ হোসেন, প্রণবী রানী, সিরাজুল ইসলাম ও গোলজার হোসেন।

মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, হরিপুর দূর্গাদাস স্কুল এন্ড কলেজ এবং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় একই জায়গায় অবস্থিত এবং একই নিয়মে পরিচালিত হয়। প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দীর্ঘ পুরানো ভবনটি জরাজীর্ণ হয়ে পড়ায় অতি সম্প্রতি সেখানে একটি নতুন ভবনের অনুমোদন হয়। কিন্তু সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি না নিয়ে এবং দরপত্র ছাড়াই শুধুমাত্র ম্যানেজিং কমিটির রেজুলেশনের মাধ্যমে ১৪টি গাছ স্থানীয় এক ব্যক্তির কাছে বিক্রি করে দেয় কলেজ কর্তৃপক্ষ।

সেই মোতাবেক গত সোমবার (১৩ জুলাই) প্রতিষ্ঠানের ভেতরে এবং প্রাচীরের নিকটবর্তী সরকারি রাস্তার পাশ থেকে মেহগনি, আম, কাঁঠাল, দেবদারুসহ মোট ৬টি গাছ কাটা হয়। স্থানীয়রা এর প্রতিবাদ জানালেও কলেজ কর্তৃপক্ষ কোনো কর্ণপাত না করায় বিষয়টি ইউএনও সরকার মোহাম্মদ রায়হানকে জানালে তিনি গাছ কাটা বন্ধ করেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ইউএনও সরকার মোহাম্মদ রায়হান বলেন, উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে না জানিয়ে শুধুমাত্র ম্যানেজিং কমিটির রেজুলেশনের মাধ্যমে সরকারি গাছ কাটা হয়েছে। তদন্তে বিষয়টি প্রমাণিত হওয়ায় থানায় এজাহার দেয়া হয়েছে। ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি যেহেতু ইউপি চেয়ারম্যান তাই তার নামও রাখা হয়েছে।

এ ব্যাপারে চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম জানান, উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এজাহার দায়েরের পর মামলা নেয়া হয়েছে। আসামিরা পলাতক রয়েছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে