ধুনটে নিজের শরীরে আগুন ধরিয়ে দিলেন গৃহবধু !

প্রকাশিত: ১০:৩২ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৬, ২০২০

ধুনটে নিজের শরীরে আগুন ধরিয়ে দিলেন গৃহবধু !

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় পারিবারিক কলহের জের ধরে সাথি খাতুন (২২) নামে এক গৃহবধূ নিজের শরীরে আগুন ধরিয়ে দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন। সাথি খাতুন উপজেলার চিকাশি ইউনিয়নের গজারিয়া গ্রামের সাজু মিয়ার স্ত্রী।

বুধবার দুপুরের দিকে ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। এ বিষয়টি গুরত্বসহকারে খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেলে আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জানা গেছে, উপজেলার জোড়খালি গ্রামের শাহজাহান আলী নামে এক প্রবাসির মেয়ে সাথি খাতুনকে প্রায় ৩ বছর আগে বিয়ে করেন গজারিয়া গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে সাজু মিয়া। তাদের দাম্পত্য জীবনে কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। সাজু মিয়া পেশায় প্রসাধনি সামগ্রী বিক্রেতা। বিয়ের পর তাদের দাম্পত্য জীবন সুখেই কাটছিল।

কিন্ত এক বছর আগে থেকে পারিবারের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে স্বামী-শাশুড়ির সাথে প্রায়ই ঝগড়া-বিবাদ হয়। এ অবস্থায় রবিবার বিকেলের দিকে তাদের মাঝে বিরোধের সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে ক্ষুদ্ধ হয়ে সাথি খাতুন স্বামীর বাড়িতে নিজের শরীরে আগুন ধরিয়ে দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। এতে তার শরীরের ৪০ শতাংশ পুড়ে গেছে। তাকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে সাজু মিয়া পলাতক রয়েছে।

সাথির মা রেহানা খাতুন জানান, অতিরিক্ত যৌতুকের দাবী করে প্রায় এক বছর ধরে মেয়ের জামাই ও শ্বশুর-শাশুড়ি বিভিন্ন ভাবে নির্যাতন করে। এ অবস্থায় রবিবার বিকেলে নির্যাতনের এক পর্যায়ে তারা আমার মেয়ের শরীরে আগুন ধরিয়ে দিয়ে হত্যার চেষ্টা করেন। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

সাজুর বাবা রফিকুল ইসলাম বলেন, আমার ছেলে বউ এর নিকট থেকে কোন প্রকার যৌতুক চাওয়া হয়নি। তাকে নির্যাতন কিংবা তার শরীরে আগুন ধরিয়ে দিয়ে হত্যার চেষ্টাও করা হয়নি। সে (সাথি) নিজেই শরীরে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। তবে শরীরে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার কারণ এখনও জানা যায়নি।